জল সেত বিধাতার সৃষ্টি ফসল, তাঁরই আদরের আঁচল
আকাশ থেকে এসে, বৃষ্টি হয়ে শেষে, ধরার বুকে মেশে।

স্রষ্টা আসে সৃষ্টির কোলে, তৃষ্ণা মিটাবে বলে
ধরার আধার- সবই তাঁর, কুয়ো বা জলনিধি
থাকবে কোন ঘরে, কুয়োতে না সাগরে, তা ঠিক করে কেবল বিধি।

কুয়ো শুকিয়ে গেলে বা সমদ্র পৃষ্ট উঁচু হলে
জলের কিছুই যায় আসে না, সেত জল অংশ কেবল, পুরটা না।
ডাক আসলে যাই সে চলে, স্রষ্টার কোলে, একাকার হবে বলে।

জল সম আত্মা, সেত মাটির ঘরে ছোট্ট বিধাতা
শুধু আসে আর যায়, নেই তার কোন ক্ষয়।
দেহ তাঁর ক্ষনেকের আধার, আসে সৃষ্টির সাথে মিশে হতে একাকার
জীবন পায় মাটির দেহ, না আছে তাঁর অন্য কোন মোহ।

কুয়োর জল মিষ্টি শীতল, সমুদ্রের জল গভীর অতল
কুয়ো না সমুদ্র, সে যাই হোক, বৃহৎ বা ক্ষুদ্র
তাতে তাঁর, ছোট্ট বিধাতার, যাই আসে না কিছু।
ডাক এলে যাই চলে, কাউকে কিছু না বলে
তাকায় না সে আর পিছু।

Category: Meaning of Life

Write a comment